বেতন বৃদ্ধির দাবিতে আন্দোলন করছেন রেডিয়েন্ট স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষকরা

 রেডিয়েন্ট স্কুল অ্যান্ড কলেজে
রেডিয়েন্ট স্কুল অ্যান্ড কলেজে

সুমন চৌধুরী , চট্টগ্রাম : 

নগরীর দক্ষিণ খুলশী এলাকায় অবস্থিত ইংরেজি মাধ্যমের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রেডিয়েন্ট স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষকরা বেতন বাড়ানোর দাবিতে আন্দোলনে নেমেছেন । ঈদের ছুটি শেষে খোলার প্রথমদিন মঙ্গলবার (১৩ জুলাই) এ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের দুটি শাখাতেই ক্লাস বর্জন করেন শিক্ষকরা । প্লে থেকে ১০ম শ্রেণি পর্যন্ত পড়ানো নগরীর অন্যতম এই ইংরেজি মাধ্যম স্কুলে ৯৫০ জন শিক্ষার্থী রয়েছে। তার মধ্যে স্কুলের মূল শাখায় প্লে থেকে তৃতীয় শ্রেণি এবং দ্বিতীয় শাখায় চতুর্থ থেকে ১০ শ্রেণি পর্যন্ত পড়ুয়া শিক্ষার্থীদের ক্লাস নেওয়া হয়। দু’শাখা মিলিয়ে স্কুলের বর্তমান শিক্ষকের সংখ্যা ৬৫ জন।

 মঙ্গলবার দুপুর ১২টার দিকে কলেজের দ্বিতীয় ক্যাম্পাসে শিক্ষকরা ক্লাস বর্জন করে একটি শ্রেণিকক্ষে অবস্থান নিয়েছেন এবং বেতন বাড়ানোর দাবির বিষয়ে নিজেদের মধ্যে আলোচনা করছেন। অন্যদিকে ক্লাস না হওয়ায় অন্য শ্রেণিকক্ষ গুলোতে শিক্ষার্থীদের খোশগল্পে মেতে উঠেছে।

 এ বিষয়ে আন্দোলনরত শিক্ষকদের কয়েকজন বলেন, ‘সরকারি স্কুলগুলোতে বেতন বাড়ানো হয়েছে । আমাদের বেতন বাড়ানোর জন্য গত ছয় মাস ধরে আমরা বলে আসছি। এ বিষয়ে স্কুল কর্তৃপক্ষকে চিঠিও দিয়েছি। কিন্তু ছয়মাস ধরে আজ-কাল বলে বলে আমাদের ঘুরানো হচ্ছে। কিন্তু আমাদের কোনো বেতন বাড়ানো হয়নি। তাই আমরা বেতন আগের তুলনায় ঈদের ছুটির আগে আমরা বেতন না বাড়ালে আন্দোলনে যাবো বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছিলাম। কিন্তু এরপরও বেতন বাড়ানোর বিষয়ে স্কুল কতৃপক্ষ থেকে কোনো উদ্যোগ নেওয়া হয়নি। তাই বাধ্য হয়ে স্কুল খোলার দিন থেকে বেতন বাড়ানোর দাবিতে আমরা ক্লাস বর্জন করেছি।’

 তবে শিক্ষকদের দাবির বিষয়ে প্রধান শিক্ষক অধ্যাপক হাসিনা জাকারিয়া বলেন, ‘ বেতন বাড়ানোর দাবিতে একটি চিঠি আমরা পেয়েছি। বছরের মাঝখানে তো বেতন বাড়ানো যায় না। এটা তো আর সরকারি প্রতিষ্ঠান নয় । একমাস পর স্কুল খুলেছে। কিন্তু শিক্ষকদের কয়েকজন দাবির কথা বলে ক্লাস না নিয়ে শিক্ষার্থীদের জিম্মি করেছে। শিক্ষকদের দাবির বিষয়ে আলোচনা চলছে। কিন্তু এর আগেই কয়েকজন শিক্ষক স্কুল খোলার দিনই আন্দোলনের নামে ক্লাস বর্জন করেছে। এটা তো ঠিক না।’