ভাবনা হলো অবসান, ঘরে বসেই জানবেন ছেলে ক্লাসে গেছে কিনা !

ইএমএস সিস্টেম আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করছেন বিভাগীয় কমিশনার রুহুল আমীন
ইএমএস সিস্টেম আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করছেন বিভাগীয় কমিশনার রুহুল আমীন

সুমন চৌধুরী , চট্টগ্রাম : 

অবশেষে ভাবনা অবসান কাটিয়ে নগরীর ৯টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অনলাইন এডুকেশন ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম (ইএমএস) চালু করা হয়েছে। এর মাধ্যমে ৯টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মোট ৫ হাজার ১৩০ জন শিক্ষার্থী, ২১১ জন শিক্ষক ও ৫৩ জন কর্মকর্তা-কর্মচারীদের পূর্ণাঙ্গ নজরদারির আওতায় আনা হল।এর মাধ্যমে বসেই জানাযাবে ছেলে ক্লাসে গেছে কিনা।

 একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ৫০-৬০ হাজার টাকা খরচ করলে এই সিস্টেমটি চালু করতে পারবে। তাছাড়া ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট ছাড়া মোবাইল ইন্টারনেটে ব্যবহারেও এই সিস্টেমটি চালানো যাবে।

 ইএমএস হলো শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমূহের দৈনন্দিন কার্যক্রম সার্বক্ষণিক পরিপূর্ণ নজরদারির আওতায় রাখার একটি অনলাইনভিত্তিক সিঙ্গেল প্লাটফর্ম। একটি মাত্র প্লাটফর্ম ব্যবহার করে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো ‘ইএমএস’এর মাধ্যমে তদারকি করা যাবে। ফিঙ্গারপ্রিন্ট ও প্রক্সিমিটি কার্ড উভয় মাধ্যমেই এটি কাজ করবে।

 বিভাগীয় কমিশনার রুহুল আমীন জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে সোমবার এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। এসময় উপস্থিত জেলা প্রশাসক মেজবাহ উদ্দিন ছিলেন।

 উদ্বোধনের পর বিভাগীয় কমিশনার রুহুল আমীন বলেন, সাম্প্রতিককালে যেসব জঙ্গিবাদী কর্মকাণ্ড ঘটছে তা নিয়ন্ত্রণে এ উদ্যোগ প্রশংসনীয়। এর মাধ্যমে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রকৃত অবস্থা নজরে আসবে। শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের উপস্থিতির বিষয়ে জানা যাবে। এর সূত্র ধরে আমরা সামনে এগুতে পারবো।’

 জেলা প্রশাসক মেজবাহ উদ্দিন বলেন, আমরা আজ ৯টি প্রতিষ্ঠানে ইএমএস সিস্টেম চালু করেছি। এর টেকনোলজিক্যাল সাপোর্ট আমরা দেব। আগামী ছয় মাসের মধ্যে প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এই সিস্টেম চালু করার উদ্যোগ রয়েছে । এর মাধ্যমে ঘরে বসে মা-বাবা জানবেন ছেলে স্কুলে গেছে কিনা, পরীক্ষায় সে কি ফলাফল পেল।’

 এদিকে ইএমএস সিস্টেম বিষয়ে পাওয়ার পয়েন্ট উপস্থাপক অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (এলএ) দৌলতুজ্জামান খাঁন বলেন, ইএমএস এর মাধ্যমে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের বায়োমেট্রিক অনলাইন হাজিরা ব্যবস্থাপনা, অনিয়মিত শিক্ষার্থীদের আলাদা তালিকা, শিক্ষার্থীদের পূর্ণাঙ্গ প্রগ্রেস রিপোর্ট তৈরির ব্যবস্থা, ফলাফল তৈরি ও প্রকাশের ব্যবস্থা, অনলাইন পেমেন্ট সিস্টেম, স্বয়ংক্রিয় হাজিরা এসএমএস সিস্টেম, প্রত্যেক শিক্ষার্থীর যাবতীয় তথ্য যেমন হাজিরা, ফলাফল, বাড়ির কাজ, বকেয়া ইত্যাদিসহ স্টুডেন্ট পোর্টাল এবং শিক্ষক পোর্টালসহ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সার্বিক ব্যবস্থাপনার প্রায় সকল মডিউলসহ থাকবে।