এমপি বদির জামিন আপিলেও বহাল

indexঢাকা অফিস: অর্জিত সম্পদের তথ্য গোপন করার অভিযোগে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদকের) করা মামলায় কক্সবাজার-৪ আসনের সরকার দলীয় আওয়ামী লীগের বিতর্কিত সংসদ সদস্য আব্দুর রহমান বদির জামিন আপিল বিভাগেও বহাল রয়েছে। মঙ্গলবার সকালে সিনিয়র বিচারপতি এসকে সিনহার নেতৃত্বে চার সদস্যের আপিল বিভাগ বদির জামিন আদেশ বহাল রাখে। আদালতে দুদকের পক্ষে শুনানি করেন তার আইনজীবী মো. খুরশীদ আলম খান। আর বদির পক্ষে ছিলেন- আব্দুল মতিন খসরু ও নাসরিন সিদ্দিকা লিনা।খুরশীদ আলম খান পরে সাংবাদিকদের বলেন, ১৫ সেপ্টেম্বর চট্টগ্রামে এক সমাবেশে এমপি বদি দুদক সম্পর্কে নানা মন্তব্য করেন। পত্রিকায় প্রকাশিত এ সম্পর্কিত প্রতিবেদন আমরা আদালতকে দেখিয়েছি। তিনি বলেন,আদালত তাকে চূড়ান্তভাবে সতর্ক করে দিয়ে বলেছে, তিনি মাললার তদন্ত চলকালে আবার এ ধরনের মন্তব্য করলে আদালত তা যে কোনো সময় বাতিল করতে পারবে।এর আগে গত ২৯ অক্টোবর আপিল বিভাগের চেম্বার বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী আব্দুর রহমান বদির জামিন বহাল রাখেন। ২৭ অক্টোবর হাইকোর্ট তাকে ছয় মাসের অন্তর্বর্তীকালীন জামিন দিয়েছিল। পরে ৩০ অক্টোবর বদি কাশিমপুর কারাগার থেকে জামিনে মুক্তি পান। গত ২১ আগস্ট বদির বিরুদ্ধে রমনা থানায় ওই মামলাটি করে দুদক। ১২ অক্টোবর এ মামলায় বদি ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিমের আদালতে আত্মসমপর্ণ করে জামিন চান। আদালত আবেদন নাকচ করে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। এরপর ১৬ অক্টোবর মহানগর দায়রা ও জ্যেষ্ঠ বিশেষ জজ আদালত বদির জামিনের আবেদন খারিজ করেন। এ আদেশের পর বদি হাইকোর্টে জামিন চেয়ে আবেদন (রিভিশন) করেন। অবৈধভাবে জ্ঞাত আয়বহির্ভূত ১০ কোটি ৮৬ লাখ ৮১ হাজার ৬৬৯ টাকা মূল্যের সম্পদের তথ্য গোপন এবং অবৈধভাবে অর্জিত সম্পদের বৈধতা দেখাতে কম দামি সম্পদকে বেশি দাম দেখানোর অভিযোগে মামলাটি করেন দুদকের উপপরিচালক মোহাম্মদ আবদুস সোবহান।