রায়পুরে বিএনপির সম্মেলন, পৌর মেয়রের হাসপাতাল ভাংচুর॥

Laxmipur news 2-12-14 1মোঃ ছায়েদ হোসেন, রামগঞ্জ লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি: লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে বিএনপির সম্মেলনে নেতা কর্মীদের স্বাগত জানিয়ে তৈরিকৃত তোরনে আগুন ও রায়পুর পৌর মেয়র এবিএম জিলানীর মালিকানাধীন মেঘনা হাসপাতাল (প্রা.) এ হামলা ও ভাংচুর করেন মুখোশধারী অজ্ঞাত ৮-১০ দুর্বৃত্তরা। ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলবার ভোর রাতে সম্মেলনস্থল রায়পুর অডিটোরিয়ামের সামনে । খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে আসার আগেই হামলাকারীরা দ্রুত ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়। আজ মঙ্গলবার বিকাল ৪টায় অনুষ্ঠিত হচ্ছে রায়পুর উপজেলা ও পৌর বিএনপির সম্মেলন। সংশ্লিষ্টরা জানায়, ভোর রাত সাড়ে ৩টার দিকে সম্মেলনস্থল রায়পুর অডিটোরিয়াম গেইটের সামনে তৈরিকৃত ৭/৮টি তোরনে আগুন ও শহরের সিনেমা হল রোডস্থ পৌর বিএনপির আহ্বায়ক এবং পৌর মেয়র এবিএম জিলানীর মালিকানাধীন মেঘনা হাসপাতাল (প্রা.) এ ইট-পাটকেল নিক্ষেপ ও করে হামলা ও ভাংচুর চালিয়ে সম্মুখের ভাংচুর করা হয়। ওই সময় হাসপাতালে থাকা রোগী, তাদের স্বজন কর্তব্যরত ডাক্তার ও নার্সদের মধ্যে আতঙ্ক দেখা দেয়। হামলাকারী সবাই মুখোশধারী হওয়া কেউ তাদের চিনতে পারেনি। পৌর বিএনপির আহ্বায়ক ও পৌর মেয়র এবং মেঘনা হাসপাতালের চেয়ারম্যান এবিএম জিলানী বলেন, আজকের উৎসাহ-উদ্দীপনার ও শান্তিপূর্ণ বিএনপির সম্মেলনকে বানচাল করতে অজ্ঞাত দুর্বৃত্তরা এ হামলা চালিয়েছে। এ ঘটনায় থানায় জিডি করা হচ্ছে। রাজনৈতিকভাবে দেউলিয়া কোনো মহল হয়তো পরিকল্পিতভাবে এ ধরণের ন্যাক্কারজনক হামলা করে আতঙ্ক সৃষ্টির অপচেষ্টা চালাচ্ছে। উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক এ্যাড. মনিরুল ইসলাম হাওলাদার বলেন, আজকের এ সম্মেলন বিএনপির নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধতার সম্মিলন। কোনো হামলা, ষড়যন্ত্র বা আতঙ্ক বিএনপির নেতাকর্মীদের বিভ্রান্ত করতে পারবেনা। শান্তিপূর্ণ সমাবেশের মাধ্যমে সম্মেলন সম্পন্ন করা হবে। আঘাত এলে বিএনপির নেতাকর্মীরা ঐক্যবদ্ধভাবেই তা মোকাবেলা করবে। রায়পুর থানার ওসি (তদন্ত) সোলায়মান চৌধূরী বলেন, ভোরে খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। হামলাকারীরা দ্রুত পালিয়ে যাওয়ায় কাউকে গ্রেফতার করা যায়নি। দোষীদের গ্রেফতারে পুলিশের তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে।