বৃক্ষরোপনের মধ্যে দিয়ে আওয়ামী লীগের প্রতিষ্টা বার্ষিকী পালন করেছে দোহাজারী পৌরসভা ছাত্রলীগ

দুর্যোগ দুর্বিপাকে আওয়ামী লীগ সর্বদা মানুষের পাশে৷ গণতান্ত্রিকভাবে জন্ম নেওয়া উপমহাদেশের অন্যতম প্রাচীনতম রাজনৈতিক দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের গৌরবোজ্জ্বল ৭১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ। ৭২ বছরে পা দিল টানা তৃতীয় মেয়াদে রাষ্ট্রের ক্ষমতায় থাকা দলটি। মহান মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে দেশের স্বাধীনতা অর্জনে নেতৃত্ব দেয় আওয়ামী লীগ। ‘বঙ্গবন্ধু, আওয়ামী লীগ, বাংলাদেশ’—ইতিহাসে এই তিনটি নাম একই সূত্রে গাঁথা।

আওয়ামী লীগ মানেই বাঙালি জাতীয়তাবাদের মূল ধারা। আওয়ামী লীগ মানেই সংগ্রামী মানুষের প্রতিচ্ছবি। উপমহাদেশের রাজনীতিতে গত ছয় দশকেরও বেশি সময় ধরে নিজেদের অপরিহার্যতা প্রমাণ করেছে দলটি। এদেশের প্রতিটি আন্দোলন-সংগ্রামে আওয়ামী লীগের ভূমিকা প্রত্যুজ্জ্বল। ৫২-র ভাষা আন্দোলন, ৬২-র ছাত্র আন্দোলন, ৬৬-র ছয় দফা, ৬৯-এর গণঅভ্যুত্থান, ৭০-এর যুগান্তকারী নির্বাচন আর ১৯৭১ সালের মহান স্বাধীনতা আন্দোলন—সবখানেই সরব উপস্থিতি ছিল আওয়ামী লীগের। আওয়ামী লীগই একমাত্র দল, যাদের বাংলাদেশের ইতিহাসে টানা তিন মেয়াদে সরকার পরিচালনার অভিজ্ঞতা রয়েছে।

সেই আওয়ামী লীগের ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠন বাংলাদের ছাত্রলীগ চট্টগ্রাম দোহাজারী পৌরসভা শাখার উদ্দ্যোগে ছাত্রলীগ নেতা সাইফুল ইসলাম আসিফ এর সভাপতিত্বে পৌরসভার বিভিন্ন এলাকায় বিভিন্ন প্রজাতির ফলজ,বনজ ও ঔষধি চারা গাছ লাগানোর মধ্য দিয়ে দলটির ৭১ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি পালন করা হয়।

এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে পৌরসভা চত্ত্বরে একটি নিমগাছ, একটি আমগাছ ও জবাফুল চারা রোপন করেন দক্ষিণ জেলা মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের সভাপতি মোহাম্মদ ওমর ফারুক চৌধুরী। এসময় তিনি বলেন, করোনা ভাইরাসের কারণে এবার বর্ণাঢ্য কোন আয়োজন থাকছে না তাই নিজ এলাকায় নেতাকর্মীদের নিয়ে সকাল থেকে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি পালন করেছি। তিনি আরো জানান, আমরা নিজেদের এই আবাসস্থল নিরাপদ রাখার স্বার্থে বৃক্ষরোপণের কোন বিকল্প নেই। তাই “বেশি বেশি গাছ লাগাই আর বেশি দিন বাঁচি” এটাই হোক এবারের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর অঙ্গিকার।

এসময় দোহাজরী পৌরসভা ছাত্রলীগ ও মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের আরো যারা উপস্থিত ছিলেন- ইলিয়াছ বিন সাঈদ,আবদুল রহিম,রাহুল সেন,সাজু দে,সৃজন শীল,বিজয় শীল,ইয়াছিন আরফাত, হৃদয় শীল,হৃদয়, ছামিমুর রহমান, সাগর শীল ও
জুয়েল প্রমুখ।