চট্টগ্রামে তারেকের বিরুদ্ধে আরও একটি মামলা

imagesচট্টগ্রাম অফিস: বঙ্গবন্ধুকে রাজাকার বলায় বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক জিয়ার বিরুদ্ধে চট্টগ্রামে আরও একটি মামলা দায়ের হয়েছে। মামলার আরজিতে তারেকের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রের সৃষ্টি এবং সার্বভৌমত্বের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের অভিযোগ আনা হয়েছে।রোববার সকালে বাশঁখালী উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক শিহাবুল হক শিকদার বাদী হয়ে চট্টগ্রাম মুখ্য মহানগর হাকিম মশিউর রহমান চৌধুরীর আদালতে মামলাটি দায়ের করেন।মামলার বাদিপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট রণি কুমার দে জানান, আদালত মামলাটি তদন্ত করে ১০ দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য কোতয়ালি থানার ওসিকে নির্দেশ দিয়েছেন। একইসঙ্গে মামলার বিষয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অনুমতি পত্র দাখিল করতে বলেছেন।তিনি বলেন, তারেক রহমান বঙ্গবন্ধু এবং মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে বিভিন্ন কুরুচিপূর্ণ বক্তব্য দিয়ে রাষ্ট্রের সৃষ্টি ও সার্বভৌমত্বের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছেন বলে মনে করছেন বাদি। এজন্য দণ্ডবিধির ‘১২৩ এ’ ধারায় রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগে তারেক রহমানের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। আদালত বাদির জবানবন্দি গ্রহণ শেষে এ আদেশ দেন।এর আগে, গত বৃহষ্পতিবার একই অভিযোগে চট্টগ্রামে তারেকের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করে মহানগর ছাত্রলীগ। মহানগর শাখার সাধারণ সম্পাদক নুরুল আজিম রণি বাদী হয়ে দায়ের করা এ মামলায়ও তারেকের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগ আনা হয়।আগামী ২৭ ডিসেম্বর ওই মামলার পরবর্তী তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে।গত সোমবার লন্ডণে বিজয় দিবসের এক আলোচনা সভায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে ‘রাজাকার, খুনি ও পাকবন্ধু’ বলেন তারেক রহমান।দীর্ঘ পৌনে দুই ঘণ্টার বক্তৃতায় তারেক রহমান দাবি করেন, বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে শেখ মুজিবের পরিবারের কোনো অবদান নেই।তারেক বলেন, ‘লাখো মানুষ যখন রণাঙ্গনে, শেখ মুজিবের পরিবার তখন খুনি ইয়াহিয়া খানের পয়সায় খানসেনাদের পাহারায় নিরাপদে দিন কাটাচ্ছেন। আওয়ামী লীগের নেতারা কলকাতায় আর শখের বন্দী শেখ মুজিবের হাতে এরিনমোর পাইপ।’আওয়ামী লীগ মুক্তিযুদ্ধকালীন দল হলেও মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের দল নয় বলে মন্তব্য করেন বিএনপির এই সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট।প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে একাধিকবার ‘রং হেডেড ও দখলদার’ বলে উল্লেখ করেন বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের ছেলে তারেক রহমান।তিনি বলেন, ‘আর দখলদার রং হেডেড শেখ হাসিনা যখনই বিপদে পড়েন, জনগণকে ধোঁকা দিতে মুক্তিযুদ্ধের চেতনার দোহাই দেয়।’ আওয়ামী লীগকে দেখামাত্র ‘রাজাকার’ বলার পরামর্শ দেন তিনি।২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার ঘটনায় করা মামলাসহ বিভিন্ন মামলার ফেরারি আসামি তারেক রহমান দীর্ঘ প্রায় ছয় বছর ধরে লন্ডনে বসবাস করছেন। সেখানে বিভিন্ন রাজনৈতিক কর্মসূচীতে অংশ নিলেও তিনি দেশে ফিরছেন না। এ নিয়ে তার মা বেগম খালেদা জিয়াসহ বিএনপি নেতাদের বক্তব্য, তারেক রহমান অসুস্থ। সুস্থ হলেই তিনি দেশে ফিরবেন।সাবেক রাষ্ট্রপতি ও বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের ছেলে তারেক এর আগেও বিদেশে বিভিন্ন রাজনৈতিক সভায় আওয়ামী লীগ, বঙ্গবন্ধু, মুক্তিযুদ্ধ এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে বিভিন্ন বিতর্কিত বক্তব্য দেন।বুধবার ঢাকায় বিজয় দিবসের আলোচনা সভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তারেক রহমানকে কুপুত্র উল্লেখ করে খালেদা জিয়াকে তার জিহ্বা সামলানোর আহ্বান জানান।