এবার ধরলে ফাইনাল হয়ে যাবে: শেখ পরশ

দেশ থেকে মৌলবাদী ও সাম্প্রদায়িক অপশক্তি নির্মূলের ঘোষণা দিয়েছেন আওয়ামী যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ। তিনি বলেন, ‘এবার যখন আমরা ধরব, ফাইনাল হয়ে যাবে। এবার আর কোনো কম্প্রোমাইজ (আপস) নয়। আমরা মাঠে আছি, দেখে নেব তাদের। চোরের ১০ দিন, গেরস্তের এক দিন। আমরা এবার তাদের দেখে নেব।’

আজ মঙ্গলবার বিকেলে রাজধানীতে মৌলবাদ-সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে একাত্তরের ঘাতক-দালাল নির্মূল কমিটি, সেক্টর কমান্ডারস ফোরাম, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটসহ ৬০টি সংগঠনের যৌথ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের দোয়েল চত্বরে কয়েক হাজার নেতাকর্মী নিয়ে মানববন্ধনে অংশ নিয়ে যুবলীগ চেয়ারম্যান এসব কথা বলেন।

যুবলীগ চেয়ারম্যান বলেন, বাংলাদেশে একটা কুচক্রী মহল মৌলবাদী ও সাম্প্রদায়িক শক্তি সৃষ্টি করে ফায়দা লোটার চেষ্টা করে। এটা বারবার হবে না। কোথা থেকে টাকা আসছে, কী তাদের এজেন্ডা তা এসব ব্যাপারে প্রশাসনিক তদন্ত হওয়া উচিত। প্রশাসনের তদন্তের মাধ্যমে আসল ষড়যন্ত্রকারী ও তাদের মদদদাতাদের চিহ্নিত করতে হবে এবং এই দেশের মাটিতেই তাদের শাস্তি দিতে হবে। তাদের একেবারে নির্মূল করে দিতে হবে। তারা যেন বারবার আমাদের স্বাধীনতা-মুক্তিযুদ্ধের চেতনা-দেশপ্রেমকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে না পারে।

শেখ ফজলে শামস পরশ বলেন, এবার আর কোনো কম্প্রোমাইজ (আপস) নয়। মৌলবাদী ও সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠীকে নির্মূল করা হবে। এজন্য দলীয় নেতাকর্মীদের সোচ্চার থাকার আহ্বান জানান তিনি।

মানববন্ধনে সংগঠনের প্রেসিডিয়াম সদস্য অ্যাডভোকেট মামুনুর রশীদ, মঞ্জুরুল ইসলাম শাহিন, মজিবুর রহমান চৌধুরী নিক্সন এমপি, মো. রফিকুল ইসলাম, নবী নেওয়াজ, মো. মোয়াজ্জেম হোসেন, মৃনাল কান্তি জোয়ার্দার, তাজউদ্দিন আহমেদ, জসিম উদ্দিন মাতাব্বর, যুগ্ম সম্পাদক বিশ্বাস মতিউর রহমান বাদশা, সুব্রত পাল, বদিউল আলম ও ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নাঈম, সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী মাজহারুল ইসলাম, সাইফুর রহমান সোহাগ, জহির উদ্দিন খসরু, সোহেল পারভেজ ও মশিউর রহমান চপল, প্রচার সম্পাদক জয়দেব নন্দী, দপ্তর সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ প্রমুখ বক্তব্য দেন।

এ ছাড়া ঢাকা মহানগর যুবলীগ দক্ষিণের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাইনুদ্দিন রানা, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম রেজা, সাংগঠনিক সম্পাদক গাজী সারোয়ার হোসেন বাবুসহ ঢাকা মহানগরের বিভিন্ন থানা ও ওয়ার্ড যুবলীগের নেতাকর্মী মানববন্ধনে অংশ নেন।