চট্টগ্রামে একদিনে করোনায় আক্রান্ত ৭১৩, মৃত্যু ৯

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে চট্টগ্রামে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও নয়জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে চট্টগ্রাম জেলায় মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ৭৪৪ জনে। একই সময়ের মধ্যে করোনা শনাক্ত হন ৭১৩ জন। এর মধ্য দিয়ে জেলায় মোট শনাক্তের সংখ্যা দাঁড়াল ৬২ হাজার ৯১৩ জনে।

বৃহস্পতিবার (৮ জুলাই) চট্টগ্রাম সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে প্রকাশিত প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

সিভিল সার্জন ডা. শেখ ফজলে রাব্বি জানান, গতকাল (বুধবার) চট্টগ্রামের বিভিন্ন ল্যাবে এক হাজার ১শ ৯ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৭১৩ জনের দেহে করোনার জীবাণু শনাক্ত হয়। এদের মধ্যে নগরের ৪৭৭ ও উপজেলার ২৩৬ জন।

জানা যায়, গত ২৪ ঘন্টায় চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ল্যাবে ১২৭ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৭৫ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে।

বিআইটিআইডি ল্যাবে ৬৪৭ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ১৪৯ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে।

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১৭৮ জলের নমুনা পরীক্ষা করে ৬২ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে।

সিভাসু ল্যাবে ১৬০ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৫৩ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে।

কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ৪০ জনের নমুনা পরীক্ষা কারো শরীরে করোনা শনাক্ত হয়নি।

এন্টিজেন টেস্টে ৪৭৬ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ১৮৪ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে।

ইম্পেরিয়াল হাসপাতালে ১২২ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৪৪ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে।

শেভরনের ১৮২ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৪৫ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে।

চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতালে ৩৮ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ২৫ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে।

আরটিআরএলে ৩৮ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ২৪ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে।

মেডিকেল সেন্টার হাসপাতালে কোনো নমুনা পরীক্ষা করা হয়নি।

এপিক হেলথ কেয়ারে ১০১ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৫২ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে।

বুধবার লোহাগাড়া উপজেলায় ৭ জন, সাতকানিয়া উপজেলায় ১২ জন, বাঁশখালী উপজেলায় ৫ জন, আনোয়ারা উপজেলায় ৬ জন, চন্দনাইশ উপজেলায় ১৩ জন, পটিয়া উপজেলায় শূন্য, বোয়ালখালী উপজেলায় ১৪ জন, রাঙ্গুনিয়া উপজেলায় ৯ জন, রাউজান উপজেলা ২৭ জন, ফটিকছড়ি উপজেলায় ২০ জন, হাটহাজারী উপজেলায় ৫৮ জন, সীতাকুণ্ড উপজেলায় ৩৩ জন, মীরসরাই উপজেলায় ১৭ জন ও সন্দ্বীপ উপজেলায় ১৫ জন নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন।