কাল ভোরে মুখোমুখি হচ্ছে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা

আগের বার শুরু হলেও শেষ করা যায়নি কোভিড-১৯ নিয়মের জটিলতায়। তাই ৯ মিনিট না হতেই থামাতে হয় খেলা। এখনো স্থগিতই আছে। সেই ম্যাচের দুই মাস পর বুধবার (১৭ নভেম্বর) বাংলাদেশ সময় ভোর সাড়ে ৫টায় মাঠে নামতে যাচ্ছে দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনা।

২০২২ বিশ্বকাপের টিকিট কেটে ফেলায় ব্রাজিলের জন্য এখন সব ম্যাচই নিয়মরক্ষার। তবে দ্য ক্লাসিক বলে কথা, এতো সহজেই তো আর সেটাকে নিয়মরক্ষার বানানো যায় না। বিশ্বব্যাপী বিখ্যাত এই লড়াইয়ে বরাবরের মতো এবারো চোখ থাকবে ফুটবল প্রেমীদের। তাই সান জুয়ানে এই ম্যাচ দেখার টিকিট কাটতে ২ মাইল লম্বা লাইন দেখা গেছে। আর্জেন্টিনার সেই শহরের প্রায় সব হোটেলই পরিপূর্ণ।

টানা ২৬ ম্যাচ অপরাজিত আর্জেন্টিনার জন্য ম্যাচটা অবশ্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ব্রাজিল বিশ্বকাপে চলে গেলেও এখনো দুয়ারে দাঁড়িয়ে আছে তারা। ১২ ম্যাচে ৮ জয় ও ৪ ড্রয়ে ২৮ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের দুইয়ে আছে লিওনেল স্কালোনির দল। আর দুটো ম্যাচ জিতলেই কাতারের বিমান ধরার নিশ্চয়তা পাবে তারা।

এই ম্যাচে একাদশে ফিরতে যাচ্ছেন লিওনেল মেসি। হাঁটুর ইনজুরি কাটিয়ে উঠে উরুগুয়ের বিপক্ষে খেলেছেন মাত্র শেষের ১৪ মিনিট। কিন্তু প্রভাব বিস্তার করতে পারেননি। অবশ্য আর্জেন্টিনার জয় পেতে কোনো সমস্যা হয়নি। ৭ মিনিটে ডি মারিয়ার একমাত্র গোলেই ৩ পয়েন্ট পেয়ে যায় তারা। আজ মেসি ফেরায় একাদশে নাও দেখা যেতে পারে পাওলো দিবালাকে। শঙ্কা আছে মিডফিল্ডার লেন্দ্রো পারদেসকে নিয়েও। গত মাসে পেরুর বিপক্ষে খেলার সময় পাওয়া উরুর চোট এখনো ভুগাচ্ছে তাকে। তাই উরুগুয়ের বিপক্ষেও খেলতে সমস্যা হয় তার। এই মিডফিল্ডারের জায়গায় গুইদো রদ্রিগেজকে একাদশে আনতে পারেন স্কালোনি।

অন্যদিকে, ব্রাজিলের একাদশেও আসবে পরিবর্তন। কার্ড নিষেধাজ্ঞার কারণে আর্জেন্টিনা ম্যাচে থাকতে পারছেন না কাসেমিরো। এই মিডফিল্ডারের জায়গা নিবেন ফাবিনিও। তাছাড়া পরিবর্তন হতে পারে আরও। আগের ম্যাচে কলম্বিয়ার বিপক্ষে ১-০ গোলের জয়ে বিশ্বকাপ নিশ্চিত হয়ে যাওয়ায় বড় কোনো চিন্তা নেই। তাই ৩৪ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে থাকা দলের গভীরতা পরখ করার কাজটাই করে যাবেন তিতে। যার ফলে গ্যাব্রিয়েল জেসুসের বদলে আক্রমণভাগে দেখা যেতে পারে ম্যাথিউস কুনাকে আর রক্ষণে অভিজ্ঞ থিয়াগো সিলভার জায়গা নিতে পারেন এডের মিলিতাও।

তবে পরিবর্তিত হয়ে যেই আসুক সবারই লক্ষ্য থাকবে তিন পয়েন্ট নেওয়া। তেমনটাই জানালেন রাইটব্যাক দানিলো, ‘এটি ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা। বিশ্বব্যপী ডার্বির প্রতিটি উপাদানই এতে রয়েছে- প্রচুর ইতিহাস, অসাধারণ দক্ষতা ও দুই দলের দুর্দান্ত সব খেলোয়াড়। আমাদের উদ্দেশ্য থাকবে সেখানে গিয়ে তিন পয়েন্ট ছিনিয়ে আনা।’

সম্ভাব্য একাদশ
ব্রাজিল: আলিসন; দানিলো, মিলিতাও, মার্কিনিওস, সান্দ্রো; ফ্রেড, ফাবিনিও, পাকেতা; রাফিনিয়া, কুনা ও নেইমার।

আর্জেন্টিনা: মার্তিনেজ; মলিনা, রোমেরো, ওতামেন্দি, আকুনা; ডি পল, রদ্রিগেজ, লো সেলসো; ডি মারিয়া, লাওতারো ও মেসি।