বুদ্ধিজীবীরা শুয়োরের বাচ্চা থেকেও খারাপ

imagesবিনোদন ডেস্ক: বর্তমান সময়ে টকশোতে যেসব বুদ্ধিজীবী খালেদা জিয়ার পক্ষে কথা বলছেন, তাদের ‘শুয়োরের বাচ্চার চেয়েও অধম’ বলে মন্তব্য করেছেন বিশিষ্ট অভিনেতা এটিএম শামছুজ্জামান।তিনি বৃহস্পতিবার দুপুরে শিল্পকলা একাডেমিতে ‘বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের’ প্রতিষ্ঠাকালীন সভাপতি আলমগীর কুমকুমের ৭২তম জন্মদিনের এক আলোচনায় সভাপতির বক্তব্যে এ মন্তব্য করেন। আওয়ামী সমর্থক এই অভিনেতা বলেন, ‘একদিন সব্যসাচী লেখক সৈয়দ শামছুল হক ভাইয়ের সঙ্গে কথা হচ্ছিল। তাকে বললাম- আপনার জন্য দুটি পদ আছে। একটি ‘শুয়োরের বাচ্চা’ অপরটি ‘বুদ্ধিজীবী’। আপনি কোনটা নিবেন?’তিনি জানান, ‘কিছুক্ষণ চুপ করে থেকে সৈয়দ শামসুল জবাব দিলেন- আমি শুয়োরের বাচ্চা নিলাম। তার মানে দাঁড়ালো, বুদ্ধিজীবীরা শুয়োরের বাচ্চার চেয়েও খারাপ।’শামসুজ্জামান বলেন, ‘আজকের দিনে যখন টকশো দেখি, তখন খালেদা জিয়ার পক্ষে কথা বলা ওইসব লোকদের সৈয়দ শামসুল হকের মন্তব্যের সেই বুদ্ধিজীবীদের মতই মনে হয়।’এ সময় তিনি খালেদা জিয়াকে উদ্দেশ্য করে বলেন, ‘আপনাকে (খালেদা জিয়া) আগামী ২০১৯ সাল পর্যন্ত নিজ কার্যালয়ে অবরুদ্ধ থাকতে হবে। তখন যদি নির্বাচনে না আসেন, তবে আপনি হবেন পাপষনেত্রী। আর আপসহীন নেত্রী থাকবেন না।’
শামসুজ্জামান বলেন, ‘যতদিন বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা বেঁচে আছেন, ততদিন আপনার (খালেদা) আর ক্ষমতায় আসার কোনো সম্ভাবনা নেই।’ নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘যতদিন শেখ হাসিনা আছে, ততদিন আওয়ামী লীগ নেতাদের কোনো ভয় নেই।’আলোচনা সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন- খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম, সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শামছুল হক টুকু, ঢাবি শিক্ষক সমিতির সভাপতি ড. কামরুল হাসান, পেশাজীবী সমন্বয় পরিষদের সভাপতি ড. আক্তারুজ্জামান, ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, আওয়ামী লীগ উপ-কমিটির সহ-সম্পাদক এমএ করিম, সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক অরুণ সরকার রানা প্রমুখ।